সমপ্রেমী না সমকামী?
রিয়াজ ওসমানী

৪ অক্টোবর ২০১৮

সমকামী (বা উভকামী) না হলে একজন মানুষ সমপ্রেম করে কি করে? বিষমকামীরা কি সমপ্রেম করতে আসবে? বিষমকামীরা পারে একই লিঙ্গের মানুষদের সঙ্গে আধ্যাতিক, প্রজ্ঞা ভিত্তিক, মনের মিলের, আনন্দের, ফাজলামীর, প্যাচালের, সহায়তা এবং সমর্থন ভিত্তিক গভীর বন্ধুত্ব বা সম্পর্ক। কিন্ত সেখানে কি প্রণয়ের ব্যাপার আসতে পারে? আমি বলবো – না! বিষমকামীরা প্রণয় করে বিপরীত লিঙ্গের কারও সাথে। একই লিঙ্গের কারও সাথে না। তাহলে সমপ্রেমী হওয়ার ধারণাটা আসছে কোথা থেকে? অনেককেই দেখেছি সমকামী না বলে সমপ্রেমী হিসেবে নিজেকে পরিচয় দিতে।

সমকামীরাই (বা উভকামীরাই) সমলিঙ্গের কারও সাথে প্রণয় সহ বন্ধুত্ব বা সম্পর্কে আবদ্ধ হতে পারে কারণ তাদের পক্ষেই সমলিঙ্গের প্রতি সেরকম অনুভুতি আসতে পারে। আর তাই যদি হয়, তো সমপ্রেমী বলে আলাদা একটা বর্ণনার দরকার কি? প্রণয় না থাকলে যেহেতু প্রেম হয় না, আর সমকামী (বা উভকামী) না হলে যেহেতু সমলিঙ্গের প্রতি প্রণয় আসা সম্ভব নয়, সেহেতু সমপ্রেমী না বলে নিজেকে সমকামী বললেই তো হয়। নাকি এখানে “কাম” শব্দটা আছে বলে যত লজ্জা আর আপত্তি। আমার তো মনে হয় তাই। এই লজ্জার কারণ কি?

বাঙ্গালী কবি-সাহিত্যিকরা অনেক কাল ধরে প্রেম আর ভালবাসা নিয়েই কবিতা আর কাব্য রচনা করেছেন। ধর্মীয় রক্ষণশীলতার কারণে যৌনতা চেপে গেছে অন্তরালে। বাংলাদেশের কিছু সমকামীরাও এই বেড়াজাল থেকে বের হতে পারছে না। হীনমন্নতায়ে ভুগছে যে তাদের যৌন প্রবৃত্তির পেছনে কাম বাসনাটাই মুখ্য। আর এই কারণেই যে তারা কারও সাথে সমপ্রেম করতে পারছে তা স্বীকার করা যেন কষ্টকর। আর হয়তো এটাও মনে হচ্ছে যে সমাজের কাছে সমপ্রেমী হিসেবে নিজেকে পরিচয় দিলে সমাজ আরেকটু সহজে তাদেরকে মেনে নেবে।

এই চিন্তাটা একেবারেই অসমীচীন। নিজের যৌনতা এবং এর সাথেকার কাম বাসনাকে অস্বীকার করা নিজের একটা বড় অংশকে মেনে না নেয়া। এর পরিণাম একটা অপরিপূর্ণ জীবন। নিজেকে মেনে নিয়ে এবং অহংকারকে দূরে রেখে গর্ব বোধ করবে প্রকৃতির দেয়া নিজের যৌন প্রবৃত্তির জন্য। আর তাই নিজেকে “সমকামী” বলে পরিচিত করতে স্বাচ্ছন্দ বোধ করবে। সমাজ, পরিবার আর ধর্ম যাই বলুক না কেন, জন্মগত এই যৌন প্রবৃত্তি, যা বিশ্বের সেরা স্বাস্থ্য সংস্থাগুলো দ্বারা একেবারেই প্রাকৃতিক ও অপরিবর্তনীয় বলে ঘোষণা দেয়া হয়েছে, তার মধ্যে লজ্জা, অপমান ও হীনমন্নতার কোন কারণ বা জায়গা নেই। নিজেকে সমকামীই বলবে এখন থেকে। সমপ্রেমী বলতে আলাদা কিছু নেই।





-----------------------------------------------------
তালিকায় ফিরে যান
মূল পাতা
আমাদের সম্বন্ধে
সম্পাদকের বক্তব্য
তথ্য ভান্ডার
সৃজনশীলতা
সংবাদ
স্মৃতি চারণ
প্রেসবিজ্ঞপ্তি
জরুরী আবেদন
নিবন্ধ
দন্ডবিধি