মনের সাথে কথোপকথন
জুয়েল ওসমানী



আমি: এই পাগল কি ভাবছিস?
আমার মন: বসে বসে অপেক্ষা করছি।
আমি: কি জন্য এতো অপেক্ষা?
মন: কেনো তুই বুঝি জানিস না?
আমি: কেন জানবো না…….
মন: হুম……
আমি: আর কত অপেক্ষা করবি তারজন্য? সে ত তোরে চায় না। কেন শুধু শুধু নিজেকে এই ভাবে কষ্ট দিচ্ছিস?
মন: কষ্ট কিসের? আর কষ্ট হবেই বা কেনো?
আমি: তাহলে বার বার তাকে মেসেজ করে নিজেকে ছোট করিস কেনো? সে তো তোর মেসেজের কোন উত্তরই দেয় না। বুঝিসনা কেন তোকে কোনদিন লাইফ পাটনার হিসেবে চায় না? যার স্বপ্ন আকাশ ছোয়াঁর, সে তোর মতো মাটিতে পড়ে থাকা খড়কুটোর কথা চিন্তা করবেনা…..
মন: হুম আমি জানি…..
আমি: তাহলে সব জেনেও কেনো পড়ে থাকিস তার আসায়……
মন: তুই আসলেই বুঝবিনা ভালোবাসা কি? কাউকে ভালোবাসার আগে যদি জানতাম সে আমার হবে……
আমি: কিভাবে?
মন: মন মানে কি জানিস?
আমি: না তুই -ই বল শুনি……

মন: সৃষ্টিশক্তি এমন একটা অঙ্গ তৈরি করেছেন, যা দেহের কোথাও খুজে যায় না। যা অদৃশ্য। এর কাজ ও অদৃশ্য। এর কাজ হলো লুকিয়ে লুকিয়ে ভালোবাসা। মন শুধু নিরবে ভালোবাসে। পৃথিবীর যেকোনো স্বার্থ এর কাছে পরাজিত। আমি জানিতো আমার মেসেজের উত্তর দিবে না। তারপরও ওকে মেসেজ দেই কারন ও যখন মেসেজ পাঠায় করে তখনই আমার খুব ভালো লাগে। ওকে যখন দেখি তখন যে তোর বুকের ভেতর হৈচৈ করে উঠি সেটাই হলো ভালোবাসা। হুম অপেক্ষা করি কারন কখনো যদি ও আমাকে খুজে আর না পেয়ে যদি চলে যায়। তাই অপেক্ষা করি, কারন ওকে খুব ভালোবাসি!

আমি: হুম বুঝছি….
মন: কি বুঝলি?
আমি: বুঝলাম তুই আসলেই একটা পাগল…..
মন: হুম তাহলে তাই। আমি আমার ভালোবাসার মানুষটির জন্য পাগল! I miss u





-----------------------------------------------------
তালিকায় ফিরে যান
মূল পাতা
আমাদের সম্বন্ধে
সম্পাদকের বক্তব্য
তথ্য ভান্ডার
সৃজনশীলতা
সংবাদ
স্মৃতি চারণ
প্রেসবিজ্ঞপ্তি
জরুরী আবেদন
নিবন্ধ
দন্ডবিধি