একটি হালনাগাদ
রিয়াজ ওসমানী

২২ জানুয়ারী ২০১৮

এই লেখাটি লেখা হয় ২৫ শে এপ্রিল, ২০১৭ তারিখে। যেই ভয়াবহ রাতটিতে বাংলাদেশের একজন সমকামী অধিকার কর্মী জুলহাজ মান্নান এবং একজন সমকামী সাংষ্কৃতিক কর্মী মাহবুব তনয়কে ঢাকায় জুলহাজের বাসায় ইসলামী জঙ্গীরা নির্মমভাবে হত্যা করে, সেই হত্যাকান্ডের প্রথম বার্ষিকীতে। এই ঘটনার কারনে বাংলাদেশে সমকামীদের অধিকার আদায়ের সংগ্রাম অনেক বছর পিছিয়ে যায় এবং অনেক কর্মীদেরকে জীবন বাচাতে দেশ থেকে পালাতে হয়। এই বন্ধুদের হারানোর শোক, ভয় এবং বাংলাদেশের যৌন সংখ্যালঘুর এই অপূরণীয় ক্ষতির প্রত্তুত্তরে আমি একটা গোপন ফেসবুক দল গঠন করি। আমি মনে করি যে বাংলাদেশের (বর্তমানে বন্ধ) সকল এলজিবিটি সংঘটনগুলো সুশীল সমাজে আমাদের অস্তিত্ব এবং অধিকার নিয়ে ভাল ভাবে সচেতনতা সৃষ্টি করতে পারলেও এখন সময় এসেছে প্রধান বিষয়বস্তুটি নিয়ে সরাসরি নিবেদিত হয়ে যাওয়া। আর তা হচ্ছে বাংলাদেশের দন্ডবিধির ৩৭৭ ধারা যার বদৌলতে দেশের সমকামীরা হুমকির মুখে পড়লে প্রশাসনের কাছে নিরাপত্তা তো চেতেই পারে না, উল্টো নাগরিক হিসেবে সব রকম অধিকার থেকে বঞ্চিত হয়।

হালনাগাদ – ২২শে জানুয়ারী, ২০১৮

আমরা বাংলাদেশে এই আইনি প্রক্রিয়া শুরু করার জন্য প্রস্তুতির দিক থেকে কিছুটা অগ্রসর হয়েছি এবং এর কাজ যথাসময়ে শুরু হবে। বৈচিত্র্য আপনাদেরকে প্রয়োজন অনুযায়ী হালনাগাদ করে রাখবে। আমাদের মধ্যে গুটি কয়েকজন আছে যারা এই আইনি প্রক্রিয়ায় বাদী হিসেবে সই করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে এবং আমি আগামী দশ বছরের মধ্যে বাংলাদেশের আইনি খাতা থেকে ৩৭৭ উঠিয়ে ফেলার একটি ব্যক্তিগত লক্ষ্য নির্ধারন করেছি।

আমাদের সাথে থাকার জন্য আপনাদের সবাইকে অনেক ধন্যবাদ। অনুগ্রহ করে বাংলাদেশের দন্ডবিধি থেকে ৩৭৭ ধারা উঠিয়ে দেয়া নিয়ে সচেতনতা তৈরি করুন। দেশের সকল স্তরের যৌন সংখ্যালঘুদের করূন দশা সম্বন্ধেও সবাইকে অবহিত করুন।





-----------------------------------------------------
তালিকায় ফিরে যান
মূল পাতা
আমাদের সম্বন্ধে
সম্পাদকের বক্তব্য
তথ্য ভান্ডার
সৃজনশীলতা
সংবাদ
স্মৃতি চারণ
প্রেসবিজ্ঞপ্তি
জরুরী আবেদন
নিবন্ধ
দন্ডবিধি