এক উদীয়মানের চোখে কিনসি স্কেল ও এক পুরুষ
জুয়েল ওসমানী



"১" বিষমকামী। কিন্তু পৃথিবীর কোন ব্যক্তিই এই নম্বরের অন্তরভুক্ত না।

"২" বিষমকামী। কিন্তু ভাল কিউট ছেলে দেখলে ভাল বলবে এবং ভাল লাগবে। কিন্তু যৌন ভাবে কোন আকর্ষণ বোধ করবে না।

"৩" বিষমকামী। কিন্তু ভালো কোন কিউট ছেলে দেখলে তার ভালো লাগবে। কিন্তু যৌনভাবে আকর্ষণ বোধ করতে পারে আবার নাও পারে।

"৪" বিষমকামী। কিন্তু ভালো কিউট ছেলে দেখলে খুব সুন্দর বলবে এবং মন্তব করবে সে অনেক সুন্দর দেখতে এবং যৌন ভাবে আকর্ষণ বোধ করতে পারে। কিন্তু সমাজ বা ধর্মের কারণে এগুবে না এই বিষয়ে।

"৫" উভকামী। এটা কে আমাদের খেয়াল করা উচিৎ। কারন হচ্ছে এই নম্বরের ব্যক্তিরা আমাদের বিষমকামী আর সমকামীদের মধ্যে বিভ্রান্তির কারন। উভকামিতা মূলত বিষমকামিতা আর সমকামিতার একটি মিশ্রন। এই কারণে এই নম্বরের ব্যক্তিগুলা যেমন খুশি একটি ছেলে বা একটা মেয়ের সাথে থাকতে পারবে। কারন এটা তাদের জন্মগত সুবিধা। এবং বাংলাদেশের প্রক্ষাপটে বেশির ভাগ উভকামীরা জেনে বা না জেনেই মেয়েদের দিকে ঝুকে এবং মেয়েদের বিয়ে করে সুখি হয়। এটাই আমরা সাধারনত দেখে থাকি। এরা একটা মেয়েকে বিয়ের আগে বা পরে আলাদা একটা ছেলের সাথেও সম্পর্ক রাখে। কিন্তু পরবর্তিতে সমাজ আর ধর্মের ভয়ে এটা বাদ দেয়। কারণ তারা দুইটার একটাকে বাদ দিয়ে বা দুইটা নিয়েই সুখি হতে পারে। যখন সমকামিতাকে খারাপ মনে করে, একটা মেয়ের সাথে সুখের সংসার বাধে। তখনই ওই উভকামী ব্যক্তিটি যেখানে সমকামী বিষয়ক কথা উঠে সেখানে সবার আগে না জেনে বা বুঝেই বলে উঠবে এটা মনের রোগ, মন থেকে বাদ দিলেই এসব আর থাকে না। কপাল ভালো আল্লাহ আমাকে বাচিয়েছেন। কিন্তু যারা এটা নিয়ে গবেষনা করে তারা তো ঠিকিই জানে কারন টা আল্লাহ না - কারনটা জন্মগত। আর আমরাও না যেনে ওই জন্মগত সুভিদাবাদী উভকামী ব্যক্তির কথার উপর ভিত্তি করে আসলে যারা সমকামী, যাদের সমকামিতা ছাড়া কোন সত্তা নেই, তাদের উপর আমরা দেই মিথ্যা অববাদ এবং অত্যচার - তাও আবার মানসিক।

"৬" সমকামী। কিছুটা উভকামী। কিন্তু একটা সুন্দর মেয়ে দেখলে সমাজের নিয়ম হিসাবে যৌন আকর্ষণ বোধ করতে পারে আবার নাও করতে পারে।

"৭" সমকামী। কিন্তু সুন্দর একটা মেয়ে দেখলে সুন্দরী বলবে কিন্তু যৌন ভাবে আকর্ষণ বোধ করবে না। কিন্তু মেয়ে মানুষ সন্দরী হলে সুন্দর মন্তব্য করবে।

"৮" সমকামী। কখনই মেয়ে দেখলে যৌন আকর্ষণ বোধ করবে না।সু ন্দর মেয়ে দেখলে সুন্দর বলবে কিন্তু দু’বার তাকিয়ে দেখতে চাইবে না।

"৯" সমকামী। সব সময় ছেলেদের প্রতি আকর্ষণ বোধ করবে। কখনই মেয়েদের ব্যাপারে মন্তব্য করবে না। অনেকে আছে মেয়েদের কথা শুনলে হিংসা করে।

"১০" সমকামী। কিন্তু পৃথিবীর কোন ব্যক্তিই সম্পূর্ণ এই নম্বরে অন্তরভুক্ত না।

বিঃ দ্রঃ "৪" নম্ববরের ব্যক্তিরাও "৬" নম্বরের ব্যক্তিদের মত কিছটা উভকামী কিন্তু সমাজ যেহেতু বিষমকামিতার দিকে পক্ষপাতদুষ্ট, এরা মনে মনে বিষমকামী হয়ে জীবন যাপন করার চাপ অনুভব করে। তাই "৪" নম্বরের ব্যক্তিরা কোন দিনও সমকামী জীবন যাপন করবে না।
-----------------------------

সম্পাদকের মন্তব্যঃ

যৌন প্রবৃত্তির বিভিন্ন শ্রেনী বিভাগ এবং ক্রমান্বয় পরিসর নিয়ে কিনসি স্কেল সংক্রান্ত কিছুটা কল্পনাযুক্ত লেখাটাকে একেবারে তথ্যবহূল হিসেবে ধরে না নেয়ার জন্য অনুরোধ জানানো হচ্ছে। আর উভকামীদের নিয়ে লেখকের মন্তব্য একান্তই তার নিজের এবং বৈচিত্র্যের নিজস্ব চিন্তাধারা হিসেবে গন্য করা যাবে না। আর কিনসি স্কেলের এই ব্যাপারগুলো মহিলাদের বেলায়েও সমানভাবে প্রযোজ্য।





-----------------------------------------------------
তালিকায় ফিরে যান
মূল পাতা
আমাদের সম্বন্ধে
সম্পাদকের বক্তব্য
তথ্য ভান্ডার
সৃজনশীলতা
সংবাদ
স্মৃতি চারণ
প্রেসবিজ্ঞপ্তি
জরুরী আবেদন
নিবন্ধ
দন্ডবিধি