নীল
কথাকলি

হঠাৎ খুব লিখতে ইচ্ছা করছে
কিন্তু কি লিখব বুঝতে পারছি না,
মনের মধ্যে যে আগুনটা জ্বলছে
সেটা তো আর লিখে বুঝানো যাবে না
আগুনে শুধুই আমি জ্বলছি,
যে আগুনটা চির অমর হয়ে থাকবে
আমরন পর্যন্ত।
কেউ আসবেনা সেটা নিভাতে
হয়তো আসবে,কিন্তু নিভাতে নয়
বরং সেটা বাড়াতে।
কিন্তু কেনো এমনটা হয়?
এতে করে কি সবাই আনন্দ পায়?
মানুষ কিভাবে এতো নিষ্ঠুর হতে পারে,
কাঠের পুতুল হলে তো কবেই
পুড়ে ছাই হয়ে যেতাম
কিন্তু আমি তো রক্তে মাংসে গড়া পুতুল।
সেটা কি ওরা বুঝে না?
আমি তো বেশি কিছু চাই নে
শুধু তো নিজের মতো করে বাচতে চেয়েছি,
কিন্তু বাচার ধরনটা কেনো এরকম?
পারলে একেবারে শেষ করে দাও
আমিও বাচি,আর তোমরাও বাচো।
এভাবে তিলে তিলে মারছো কেনো?
কি দোষ আমার বলো???
আমি আমার মতো বলে,
আমি তোমাদের মতো হতে পারি নি বলে,
কে বলেছে আমি তোমাদের মতো না?
দেখো আমার দিকে তাকিয়ে
কু-দৃষ্টি দিয়ে নয়,মনুষ্যত্বের চোখ দিয়ে।
কোন পার্থক্যতো নেই তোমাদের থেকে
আমি আমার মতো করে বাচতে চাই,
জীবনটা তো আমার,তাই না?
তাহলে তোমাদের কি আসে যায়?
আমি আমার ভাবনা গুলো ভাবি,
তোমাদের গুলো কেনো ভাবতে যাবো
যদি আমাকে সেটাই করতে হয়,
তাহলে তোমরাও আমার ভাবনা গুলোকে নাও,
তাহলেই তো হবে সমান সমান।
শুধু শুধু আমার পেছনে কেনো লাগতে আসো?
একটু ভেবে দেখো আমার মতো করে,
ভালোবাসতে শেখো একটু
তাতে লাভ বৈকি ক্ষতি হবে না।





-----------------------------------------------------
তালিকায় ফিরে যান
মূল পাতা
আমাদের সম্বন্ধে
সম্পাদকের বক্তব্য
তথ্য ভান্ডার
সৃজনশীলতা
সংবাদ
স্মৃতি চারণ
প্রেসবিজ্ঞপ্তি
জরুরী আবেদন
নিবন্ধ
দন্ডবিধি